বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন

খবরের শিরোনাম :
সড়কে দাড়িয়ে মেয়র প্রার্থী মোস্তফার জন্য দোয়া রসিক নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দিলেন মোস্তফা অভাবের সংসারে বার্ষিক পরিক্ষা দেয়ার দ্বিমত থাকা শয়নের পরিক্ষার সুযোগ করে দিলো পাগলাপীর বাইক রাইডার্স টিম। মোস্তাফাকে রংপুর সিটি নির্বাচনে লাঙ্গলের মেয়র প্রার্থী ঘোষণা রওশন এরশাদের রসিক নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তফা রংপুর মহানগর জাপার মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রসিক নির্বাচনে বর্তমান মেয়র সহ ৭ জনের মেয়র পদে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ রসিক নির্বাচনের মনোনয়ন কিনলেন মোস্তফা মোস্তফা জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পাওয়ায় স্বস্তিতে নেতাকর্মীরা রংপুর বিভাগীয় আর্জেন্টিনা ফ্যানস ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা মেয়র মোস্তফা
বিয়াইনের সঙ্গে সম্পর্কের জেরে ফাঁস দিলো ছাত্রলীগ নেতা

বিয়াইনের সঙ্গে সম্পর্কের জেরে ফাঁস দিলো ছাত্রলীগ নেতা

নিউজ ডেক্সঃ
বিয়াইনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ভাটিখাইন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সেক্রেটারি শহীদুল ইসলামের। কিন্তু কোনভাবেই পরিবারকে মানাতে পারছিলেন না। এনিয়ে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে তার দূরত্ব তৈরি হয়। শেষ পর্যন্ত গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন এই ছাত্রলীগ নেতা।

শুক্রবার (১ জুন) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এই ছাত্রলীগ নেতার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত ছাত্রলীগ নেতা শহীদ ভাটিখাইন ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র।

জানা গেছে, বড় ভাই লিটনের শ্যালিকার সঙ্গে ছাত্রলীগ নেতা শহীদুল ইসলাম শহীদের দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি না মানায় তাদের সাথে শহীদের মনোমালিন্য চলছিলো। একপর্যায়ে অনেকটা অভিমান করে শুক্রবার বিকেলের দিকে নিজের শোয়ারঘরের ফ্যানের সাথে রশিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন শহীদ। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এক শিশু জানালা দিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত লাশটি দেখতে পেয়ে পরিবারের লোকজনকে খবর দিলে তারা শহীদকে পটিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক শহীদকে মৃত ঘোষণা করেন।

পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার জানিয়েছেন, যতটুকু জেনেছি প্রেমের সম্পর্কের জেরে ছাত্রলীগ নেতা আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন শেষে বাকিটা জানা যাবে।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

© ২০২০-২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution