বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৩৩ পূর্বাহ্ন

খবরের শিরোনাম :
তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ সভা সফল করার লক্ষে কাল জাতীয় পার্টি রংপুরের প্রস্তুতি সভা দুর্নীতি নিয়ে সংবাদ প্রকাশের মামলায় ৩ সাংবাদিকের জামিন রসিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অংশ গ্রহনে প্রশিক্ষণ কর্মশালা রংপুরে সাংবাদিকদের নামে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত পীরগাছায় জাল খতিয়ান করায় চার জন কে জেল হাজতে প্রেরণ সাবেক এমপি করিম উদ্দিন ভরসার মৃত্যুতে জাতীয় পার্টি নেতা লোকমান হোসেনের শোক প্রকাশ । সাবেক এমপি করিম উদ্দিন ভরসার মৃত্যুতে জাতীয় পার্টি নেতা এস এম ইয়াসিরের শোক প্রকাশ। সাবেক এমপি করিম উদ্দিন ভরসার মৃত্যুতে রসিক মেয়রের শোক প্রকাশ। সাবেক এমপি করিম উদ্দিন ভরসার মৃত্যুতে জাতীয় ছাত্রসমাজ রংপুর মহানগর সভাপতি আসিফের শোক প্রকাশ। ৬ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে, তবুও সরকারি চাকরিতে বহাল
ঠাকুরগাঁওয়ে খাবারে চুল পাওয়ায় স্ত্রীকে মারধর করে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন স্বামী।

ঠাকুরগাঁওয়ে খাবারে চুল পাওয়ায় স্ত্রীকে মারধর করে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন স্বামী।

নিউজ ডেক্সঃ

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলারহাট ইউনিয়নে খাবারে চুল পাওয়াকে কেন্দ্র করে স্ত্রীকে মারধর করে মাথা ন্যাড়া করার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) রুহিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন স্ত্রী সবুরা খাতুন। তবে মামলা করার পাঁচ দিন পার হয়ে গেলেও আসামি গ্রেফতার না হওয়ায় হুমকিতে রয়েছেন বাদী।

অভিযুক্ত স্বামী এহসান মামুন ওই ইউনিয়নের মাধবপুর নওয়াপাড়া গ্রামের মৃত মহির উদ্দীনের ছেলে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য হোসেন আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এহসান মামুন মারধর করে তার স্ত্রীর মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছে। এর আগেও অনেকবার তার স্ত্রীকে নির্যাতন সে করেছে। আমার কাছে তার স্ত্রী বিচার চাইতে আসলে আমি থানায় যেতে বলি।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, একই ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামের হামিদুর ইসলামের মেয়ের সঙ্গে ১৩ বছর আগে এহসান মামুনের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে একটি ৩ বছরের মেয়ে ও ১২ বছরের একটি ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য মামুন তার স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে।

গত ১৭ মার্চ দুপুরে মামুন ভাত খাওয়ার সময় থালায় একটি চুল পাওয়াকে কেন্দ্র করে তার স্ত্রীকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে মাথা ন্যাড়া করে দেন। তার পরেও দুই সন্তানের কথা চিন্তা করে মামুনের সঙ্গে সংসার করে আসছিলেন তিনি। এরই মধ্যে গত বুধবার দুপুরে তার স্ত্রীকে এক প্রতিবেশীর সঙ্গে কথা বলতে দেখে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে বাঁশের লাঠি দিয়ে সারা শরীরে এলোপাতাড়ি মারধর করে স্ত্রীর নাক ও হাতের গহনা খুলে নিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। একটু সুস্থবোধ করলে পরের দিন স্বামী মামুনের বিরুদ্ধে রুহিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন স্ত্রী সবুরা খাতুন।

নির্যাতনের বিষয়ে ওই গৃহবধূ বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমার স্বামী আমাকে প্রায় সময় অমানবিক নির্যাতন করে। শুধু সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সংসার করছি। মামুন আমার পরিবারের কাছ থেকে একবার ৩০ হাজার টাকা যৌতুক নিয়েছে। এখন আবারও টাকার জন্য মা-বাবার কাছে বলার জন্য আমাকে চাপ দেয়। আমার বাবা অনেক গরিব। টাকা চাইতে পারব না জানালে মারধর করে আমার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়।

তিনি আরও জানান, মামলা তুলে না নিলে দুই সন্তানকে হত্যা করে আমার উপর হত্যা মামলা করবে বলে হুমকি দিচ্ছে মামুন। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত এহসান মামুনের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

রুহিয়া থানার ওসি চিত্ররঞ্জন রায় বলেন, সবুরা খাতুন নামে এক গৃহবধূ স্বামী নির্যাতনের অভিযোগ এনে একটি মামলা করেছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

© ২০২০-২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এনপিনিউজ৭১.কম
Developed BY Rafi It Solution